কি, কেন, কীভাবে

বন্ধুরা,
আমরা একটা নতুন ওয়েব পোর্টাল খুলতে চাইছি খুব নির্দিষ্ট উদ্দেশ্য নিয়ে। যদি উদ্দেশ্য তোমাদের সাথে অল্পবিস্তর মিলে যায়, তাহলে এই পোর্টালে তোমরাও অংশগ্রহণ করো — এই আমাদের আবেদন।
প্রথমে উদ্দেশ্যটা বলি :
আমরা প্রত্যেকেই তো একেকভাবে দুনিয়া দেখি। যতটা দেখতে পাই, ততটাই দেখি। সেই দুনিয়াতে আমরা ডানা মেলতে চাই। আমাদের বর্তমানকে অতিক্রম করতে চাই। কে আর বর্তমানকে আঁকড়ে পড়ে থাকতে চায়! তাই জন্যই তো উন্নয়ন শব্দটা এত প্রিয়।
কিন্তু উন্নয়ন শব্দটা আবার অপ্রিয়ও। কারণ তা অনেকসময়ই আমাদের বর্তমানের বড়ো আদরের কিছু কিছুকে বাতিল করে। এমনকি ধ্বংস করে।
আমাদের এই বর্তমান আর আশুর টানাপোড়েনের মধ্যে পড়ে কখনো আমরা বর্তমানকে আঁকড়ে ধরি, ডানা ছেঁটে ফেলি; কখনো আমরা অতীতের বর্তমান কোনো রূপকল্পকেই পাখির চোখ করি।
এতো গেলো ডানা ছাঁটা। কিন্তু শুধু কি তাই? দুনিয়ায় ডানা মেলে বর্তমানকে অতিক্রম করার অনিশ্চয়তাও তো সহ্য হয় না! তখন এই বর্তমানেই আমরা চাই ভবিষ্যতের কোনো রূপকল্প। তার পেছনে মেপেজুকে ওড়ার চেষ্টা। আর হঠাৎ সে রূপকল্প হালকা হয়ে গেলেই চৌপাট! ভবিষ্যতের রূপকল্পের অভাবে ফের বর্তমানকেই আঁকড়ে ধরা…। ডানা না মেলতে চাওয়া।
কিন্তু বর্তমানকে আঁকড়ে কি বর্তমানে থাকা যায়? বর্তমান তো সবসময়ই অতীত হয়ে যাচ্ছে!
তাই বর্তমানের জন্যই ডানা গজাবেই।
আর, থাকলে ডানা মেলবেই তার দুনিয়ায়। বর্তমানকে অতিক্রম করতে চেয়ে।
আমাদের ওই ডানা মেলাটাকেই আমরা বলি — আজাদি।
আর আমাদের দুনিয়াগুলো নিয়েই — বসুন্ধরা।
বসুন্ধরায় আজাদি।
রঙে, রূপে, লেখায়, সাক্ষাৎকারে, বর্ণনায়, মতামতে, বচনে, রিপোর্টিংয়ে, কবিতায়, গানে — সোজা কথা — পোর্টালে প্রকাশযোগ্য যে কোনো মিডিয়ামে — দুনিয়ায় ডানা মেলার, বর্তমান আর আশুর টানাপোড়েনের মাঝে বাসনার, এবং তাকে রূপকল্পগুলি থেকে বেছে নেবার চেষ্টাই এই পোর্টালের উদ্দেশ্য।
এই গেলো উদ্দেশ্য। হ্যাঁ, খুব পরিষ্কার নয়, ঝাপসাই উদ্দেশ্যটা।
এবার কীভাবে তোমরা পোর্টালটির সাথে যোগ দিতে পারো বলি :
ক) অনুদান দিয়ে। এককালীন। অথবা, বার্ষিক। অনধিক পাঁচশো টাকা। খ)  পোর্টালটি মাঝে মাঝে দেখে। প্রকাশিত জিনিসগুলি পড়ে-দেখে-শুনে।  গ) অন্যদের দেখিয়ে। অন্যদের সাথে শেয়ার করে। ঘ) পোর্টালে প্রকাশযোগ্য কোনো মিডিয়ামে উদ্দেশ্যটির সাথে সঙ্গতিপূর্ণ (অবশ্যই তোমার ইন্টারপ্রিটেশনে) কিছু পাঠিয়ে। বাংলা, ইংরেজি অথবা তোমার পছন্দের যে কোনো ভাষায়। ঙ) পোর্টালটা চালাচ্ছি যে ‘আমরা’-টি — তাতে যোগ দিয়ে। উদ্দেশ্যটি এবং দায়িত্বগুলির অংশীদার হয়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.